কীর্তিমানের মৃত্যু নেই ভাবসম্প্রসারণ class 7, 8, HSC

Rate this post

আমাদের সাইটের প্রিয় শিক্ষার্থীবৃন্দ আপনাদের জন্য আজকে নতুন একটি ভাবসম্প্রসারণ নিয়ে আসলাম আর সেটা হল  কীর্তিমানের মৃত্যু নাই ভাবসম্প্রসারণ তাহলে চলুন দেখে নেই সম্পূর্ণ  ইউনিক এই কীর্তিমানের মৃত্যু নেই ভাবসম্প্রসারণটি

প্রশ্নঃ কীর্তিমানের মৃত্যু নেই ভাবসম্প্রসারণ

ভাবসম্প্রসারণঃ সময় অনন্ত সংক্ষিপ্ত , জীবন সংক্ষিপ্ত। সংক্ষিপ্ত এ জীবনে মানুষ তার মহৎকর্মের মধ্য দিয়ে এ পৃথিবীতে স্মরণীয় বরণীয় হয়ে থাকে। আবার নিন্দনীয় কর্মের ফলে এই জগতে সে বেঁচেও মরে থাকে। কেননা ব্যক্তি, পরিবার, সমাহ তাকে ভালােবাসে না, সমাজ, দেশ ও জাতি তাকে শ্রদ্ধা করে না, স্মরণ করে না; তার মৃত্যুতে কারও কিছু যায় আসে না।মানুষ মাত্রই জন্ম-মৃত্যুর অধীন। পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করলে একদিন তাকে মৃত্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে- এটা চিরন্তন সত্য। মৃত্যুর মধ্য দিয়েই সে পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নেয়, কিন্তু পেছনে পড়ে থাকে তার মহকর্মের ফসল— যে-কর্মের জন্যে সে মরে যাওয়ার পরও পৃথিবীতে যুগ যুগ ধরে বেঁচে থাকে। মানুষের জীবনকে দীর্ঘ বয়সের সীমারেখা দিয়ে পরিমাপ করা যায় না। জীবনে কেউ যদি কোনাে ভালােকাজ না করে থাকে তবে সে জীবন অর্থহীন, নিস্ফল। সেই নিষ্ফল জীবনের অধিকারী মানুষটিকে কেউ মনে রাখে না। নীরব জীবন নীরবেই করে যায়। পক্ষান্তরে, যে-মানুষ জীবনকে কর্মমুখর করে রাখে এবং যার কাজের মাধ্যমে জ্বগৎ ও জীবনের উপকার সাধিত হয় তাকে বিশ্বের মানুষ শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করে। সেই সার্থক মানুষের কাজের অবদান বিশ্বের বুকে কীৰ্তিত হয়ে কৃতী লােকের গৌরব প্রচারিত হতে থাকে। কীর্তিমান ব্যক্তির যেমন মৃত্যু নেই, তেমনি শেষও নেই, কারণ এ পৃথিবীতে সে নিত্য কীর্তির মহিমায় লাভ করে অমরত্ব। কীর্তিমানের মৃত্যু হলে তার দেহের ধ্বংসসাধন হয় বটে, কিন্তু তার সৎকাজ এবং অম্লান কীর্তি পৃথিবীর মানুষের কাছে তাকে বাচিয়ে রাখে। তার মৃত্যুর শত শত বছর পরেও মানুষ তাকে স্মরণ করে। তাই সন্দেহাতীতভাবে বলা যায়, মানবজীবনের প্রকৃত সার্থকতা কৰ্ম-সাফল্যের ওপর নির্ভরশীল। একটা নির্দিষ্ট সময়ের জন্যে মানুষ পৃথিবীতে আসে এবং সে সময়সীমা পার হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সে বিদায় নেয় পৃথিবী থেকে। এ নির্দিষ্ট সময়সীমায় সে যদি গৌরবজনক কীর্তির স্বাক্ষরে জীবনকে মহিমান্বিত করে তুলতে সক্ষম হয়, মানবকল্যাণে নিজের জীবন উৎসর্গ করে, তবে তার নশ্বর দেহের মৃত্যু হলেও তার স্বকীয় সত্তা থাকে মৃত্যুহীন। মন্তব্যঃ গৌরবােজ্জ্বল কৃতকর্মই তাকে বাঁচিয়ে রাখে যুগ থেকে যুগান্তরে।মানুষের দেহ নশ্বর কিন্তু কীর্তি অবিনশ্বর। কেউ যদি মানুষের কল্যাণে নিজেকে নিবেদিত করে, তবে মৃত্যুর পরেও তার এ কীর্তির মধ্য দিয়ে সে মানুষের হৃদয়ের মণিকোঠায় চিরকাল বেঁচে থাকে।

কীর্তিমানের-মৃত্যু-নেই-ভাবসম্প্রসারণ

কীর্তিমানের মৃত্যু নেই ভাবসম্প্রসারণ নিয়ে বিশেষ কিছু প্রশ্ন উত্তরঃ

প্রশ্নঃ কীর্তিমানের মৃত্যু নেই english অনুবাদ কি?

উত্তরঃ Great minds are immortal.

প্রশ্নঃ কীর্তিমানের মৃত্যু নেই কার উক্তি?

উত্তরঃ কীর্তিমানের মৃত্যু উক্তিটি হচ্ছে হার্বাট স্পেন্সারের দেওয়া বিখ্যাত একটি উক্তি। যেটা দিয়ে কীর্তিমানের মৃত্যু নেই ভাবসম্প্রসারণ ও বেশ জনপ্রিয় এবং শিক্ষানীয়।  

আরো পড়ুনঃ MEC ও MEI এর মধ্যে পার্থক্য

আশা করি সকল শ্রেনীর শিক্ষার্থীবৃন্দ আমাদের এই সাইটের ভাবসম্প্রসারণ পড়ে উপকৃত হবে কীর্তিমানের মৃত্যু নেই ভাবসম্প্রসারণ -টি আপনাদের উপকারে আসবে এমন আরো ভাবসম্প্রসারণ বা শিক্ষানীয় পোষ্ট পড়েতে আমাদের সাইটটি ভিজিট করতে পারেন … ধন্যবাদ

Leave a Comment